সোমবার, এপ্রিল ২২, ২০২৪
Google search engine
Homeশিক্ষাপর্দা নামল মুরারিচাঁদ কলেজ বইমেলার

পর্দা নামল মুরারিচাঁদ কলেজ বইমেলার

আধুনিক ডেস্ক:

সন্ধ্যা যখন ঘনিয়ে এলো তখনি মুরারিচাঁদ কবিতা পরিষদের সভাপতি হাসনাত জাহান সুমনা’র সমাপনী বক্তব্যের মধ্য দিয়ে সমাপ্তি ঘোষণা করা হলো এমসি কলেজে অনুষ্ঠিত তিন দিনব্যাপি ৬ষ্ঠ বইমেলা। আবারো প্রতীক্ষা শুরু একটি বছরের। পরের বছর আবার বইমেলার সঙ্গে দেখা হবে লেখক-পাঠকের।

মুরারিচাঁদ (এম.সি) কলেজের ৩ দিনব্যাপী অমর একুশে গ্রন্থমেলার পর্দা নামল বৃহস্পতিবার। সন্ধ্যা ৬ টায় শেষ হয়েছে প্রাণের মেলা। গত তিনদিন মেলায় হয়েছে বই বিনিময়। সঙ্গে চলেছে মতের আদান-প্রদান, গান, কবিতা, নৃত্য, ডিবেট, পথনাটক, খাওয়া-দাওয়া, গল্প-আড্ডা এবং সেলফি। অনেকেই আবার এই বসন্তের আবহে মেলাতে ফিরে পেয়েছে অনেকদিন দেখা না হওয়া প্রিয় মানুষকে। অনেক কিছু নিয়ে এবার স্মৃতির মণিকোঠায় জায়গা করে নিয়েছে এমসি কলেজের এই বইমেলা।

শহীদ দিবস ও আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস ২০২৪ উপলক্ষে মুরারিচাঁদ কলেজের সাংস্কৃতিক সংগঠন মুরারিচাঁদ কবিতা পরিষদ কর্তৃক তিন দিনব্যাপী আয়োজিত বইমেলার সমাপনী পর্বে একজন নারী মুক্তিযোদ্ধাকে সংবর্ধনা দেওয়া হয়েছে। রোকেয়া বেগম একজন কন্ঠ মুক্তিযোদ্ধা। মুক্তি যুদ্ধ চলাকালীন সময়ে তিনি বাংলাদেশ বেতার, সিলেটে অনুষ্ঠান উপস্থাপক হিসেবে কর্মরত ছিলেন। এছাড়াও বাহান্ন প্রশ্নে একুশ কুইজ প্রতিযোগিতার পুরস্কার বিজয়ী শিক্ষার্থীদের মধ্যে প্রদান করা হয়।

এর আগে গত সোমবার সকাল ১১ টায় ৩ দিনব্যাপী বইমেলার উদ্বোধন করেন এমসি কলেজের অধ্যক্ষ অধ্যক্ষ প্রফেসর আবুল আনাম মো. রিয়াজ। এমসি কলেজের অন্যতম সাহিত্য ও সাংস্কৃতিক সংগঠন মুরারিচাঁদ কবিতা পরিষদ (মুকপ) ৬ষ্ঠ বইমেলার আয়োজন করেন। শুরু থেকেই পাঠক-ক্রেতাদের পদচারণায় মুখর ছিল এম.সি কলেজ বইমেলা প্রাঙ্গণ। এবারের মেলায় বই বিক্রিতেও খুশি প্রকাশকরা।

লেখক-প্রকাশকরা নতুন নতুন বই নিয়ে হাজির হয়েছিলেন পাঠকের সামনে। শেষদিনে শেষ মুহূর্তে ছিল বই কেনার মহোৎসব। মেলার সময় ফুরিয়ে যাবার পরও স্টলগুলোতে ছিল পাঠকের ভিড়। বন্ধু-বান্ধব, পরিবার-পরিজন নিয়ে অনেকে এসেছিলেন মেলায়। ঘরে ফেরার সময় হাতে করে নিয়ে গেছেন বইভর্তি ব্যাগ।

৩ দিনব্যাপী বইমেলার সাংস্কৃতিক পর্বে অংশগ্রহণকারী সংগঠনগুলো হলো থিয়েটার মুরারিচাঁদ, মোহনা সাংস্কৃতিক সংগঠন, রোবার স্কাউট দল, একদল ফিনিক্স, মেটোসুর, এম.সি কলেজ ছাত্রলীগ, মুরারিচাঁদ কলেজ ডিবেটিং সোসাইটি, বিএনসিসি, একদল ফিনিক্স, মুক্তাক্ষর ইত্যাদি। শেষদিনে সংগঠনগুলোকে মুরারিচাঁদ কবিতা পরিষদের পক্ষ থেকে শুভেচ্ছা স্মারক দেওয়া হয়।

বইমেলার সমাপনী অনুষ্টানে উপস্থিত ছিলেন এমসি কলেজের অধ্যক্ষ প্রফেসর আবুল আনাম মো. রিয়াজ, মুরারিচাঁদ কবিতা পরিষদের উপদেষ্টা ও দায়িত্বপ্রাপ্ত শিক্ষক সুনীল ইন্দু অধিকারী, জনাব ফৌজিয়া আজিজ। মোহাম্মদ বিলাল উদ্দিন, সহযোগী অধ্যাপক বাংলা বিভাগ, বিভিন্ন বিভাগের শিক্ষকবৃন্দ, বইমেলায় আগত দর্শনার্থী এবং ছাত্র-ছাত্রীরা। ছাত্রলীগের পক্ষ থেকে বক্তব্য রাখেন এমসি কলেজ ছাত্রলীগ নেতা দিলোয়ার হোসেন রাহী ও হাবিবুর রহমান হাবিব ।

সমাপনী বক্তব্যে সভাপতি হাসনাত জাহান সুমনা বলেন, মুরারিচাঁদ কবিতা পরিষদের পক্ষ থেকে একটাই দাবি মুরারিচাঁদ কলেজের সাংস্কৃতিক ও সাহিত্য বিষয়কে আরো গতিশীল করার জন্য এমসি ক্যাম্পাসে একটি মুক্তমঞ্চ বিশেষ প্রয়োজন। যার ফলে যেকোনো সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান আয়োজন করতে আরো সহজলভ্য হয়ে উঠবে। ক্যাম্পাসের সৌন্দর্য বৃদ্ধি পাবে। আমরা দৃড় বিশ্বাস খুব দ্রুত প্রশাসন এই বিষয়ের উপর নজর দিবেন।

বইমেলায় অংশগ্রহণকারী স্টলগুলো, এমসি কলেজ ছাত্রলীগের ‘একুশ’, পাপড়ি, নির্বাচিত সিলেট, জসীম বুকস্ হাউস, দোআঁশ, প্রথমা (বন্ধুসভা), আদিবা লাইব্রেরী, সিলেট প্রকাশন, চৈতন্য, সরলতা, নাজমা বুক ডিপো, মারুফ লাইব্রেরী, সিলেটী বইপোকা, গাঙুড় প্রকাশনী এবং জাগরণের স্টল ছিলো।

মুকপের সাবেকদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন কবি অসীম সরকার, লক্ষণ রায়, সজল মালাকার, মহসিন আলম, এনামুল ইমাম, নির্মল দেব। আরো উপস্থিত ছিলেন মুকপের বর্তমান কার্যনির্বাহী কমিটির সদস্যবৃন্দ।

প্রাসঙ্গিক সংবাদ

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

- Advertisment -
Google search engine

জনপ্রিয়

Recent Comments